1. admin@dailymuktirshongbadbd.com : Dailymuktirshongbadofficial :
  2. mridapress@gmail.com : mridapress@gmail.com :
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৪৪ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আপনার সংবাদ প্রচারে বিজ্ঞাপন দিন
শিরোনামঃ
হীড বাংলাদেশ নামক প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পরিচালক এর আজ শুভ জন্মদিন বরগুনায় যুদ্ধ অপরাধী ও রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করার দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি/নিউজ বরগুনায় ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা ও ইলিশ উৎসব ২০২২ অনুষ্ঠিত/ মুক্তির সংবাদ গৌরনদীতে অসহায় পরিবারের পানের বরজ ভাংচুর ও জমি দখল, ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে সময়িক রক্ষা মেলে সমাজ উন্নয়ন অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন গোল্ডেন ঈগল ওপেন এয়ার স্কাউট গ্রুপের স্কাউট সদস্য মো: তানভীর নেওয়াজ পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধ বিষয়ক সাংবাদিকদের /news বকেয়া দুই মাসের বেতন উদ্ধার ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দামের সহযোগিতায়। কালশী বস্তিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে আগুন নিভানো ও উদ্ধার কাজে রোভার স্কাউটদের অংশগ্রহণ। পাথরঘাটায় দেওয়ানি মামলা চলমান” জোরপূর্বক জমি দখলের পাঁয়তারা বরগুনা জেলা সংবাদদাতা: বরগুনার পাথরঘাটায় জোরপূর্বক জমি দখলের পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে এলাকার প্রভাবশালী ভুমি দস্যু শাহ আলম খান গংদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি পাথরঘাটা পৌর সভার ৯নং ওয়ার্ডে। এব্যাপারে ভুক্তভোগী মোঃ জব্বার হাওলাদার গংরা মোকাম বরগুনা ,পাথরঘাটা সহকারী জজ আদালতে (স্বত্ত্ব ঘোষণা সহ বন্টন) ৩৪৭ জনকে বিবাদী করে দেওয়ানি মোকদ্দমা নং ১৯৪/২০২১ ইং মামলা দায়ের করেছেন। উক্ত মোকদ্দমা টি চলমান রয়েছে। প্রতিপক্ষ শাহ আলম খান আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল না হয়ে জোর পূর্বক জব্বার হাওলাদার গংদের কবলা ও রেকর্ডিও মালিকানা প্রায় ২০০ বছরের ভোগদখলীয় জমি দখলের পাঁয়তারা করেন জানান ভুক্তভোগীরা। স্থানীয়রা বলেন , দীর্ঘদিন যাবত জব্বার গংরা জমি চাষাবাদ ও বসতবাড়ি নির্মাণ করে আসছে। কিন্তু শাহ আলম গংরা জমি পাবেনা বুঝতে পেরেই এক শ্রেণীর অসাধু কুচক্রী মহলের দ্বারপ্রান্ত হয়ে শাহ আলম খান গংদের পক্ষের মরিয়ম নামের একজন জমির মালিক সেজে কাগজপত্র বিহীন গত ০২ আগষ্ট ২০২২ ইং তরিকুল ইসলাম আসাদুজ্জামান নামের এক ব্যক্তিকে বায়না রেজিস্ট্রি করে দেন জব্বার হাওলাদার গংদের ভোগদখলীয় জমি । ক্ষমতাসীনরা ভুয়া বায়না কাগজপত্র পেয়ে ক্ষমতার প্রভাব দেখিয়ে দেওয়ানি বন্টন মামলা চলমান থাকার পরেও তারা জমি দখলের পাঁয়তারা চালায়। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মোঃ জব্বার হাওলাদার গংরা প্রশাসনের সহযোগিতা চান। তবে অভিযুক্ত শাহ আলম খান গংরা, উল্লেখিত দেওয়ানি মামলায় এপিয়ার হয়েছেন বলে জানান তারা। মুক্তির সংবাদ গাজীপুর মহানগর কাশিমপুর উপজেলার ৩ নং ওয়ার্ড এর মানবতার সেবক ইদ্রিস মোল্লা

মামলা প্রত্যাহার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান । মুক্তির সংবাদ

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২৯ জুলাই, ২০২২
  • ১১৭ এতক্ষন দেখবেন

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা:বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও একাত্তর টিভির বরগুনা প্রতিনিধি ইমরান টিটুর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচী পালিত হয়েছে বরগুনায়। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) দুপুরে বরগুনার অগ্নিঝরা একাত্তর প্রাঙ্গনে এ কর্মসূচি পালন করে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন।মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, মুক্ত গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠার প্রধান বাঁধা হচ্ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন। এ আইন দূর্নীতিবাজদের এক শক্তিশালী হাতিয়ার। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগের ফলে অপরাধীদের বিচার না হয়ে উল্টো সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। অতিবিলম্বে এ আইন বাতিলের দাবি জানান সরকারের কাছে।জানা যায়, চলতি বছরের ১ মার্চ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী ইয়ার উদ্দিন খলিফার দরবার শরীফের দুর্নীতি নিয়ে বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ইমরান হোসেন টিটুর অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রচার হয় একাত্তর টিভিতে। মাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও মির্জাগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মল্লিকের ভাগ্নে বাদল (বাক্স বাদল) প্রতিবেদনটি না করার জন্য একাত্তর টেলিভিশনের বরগুনা অফিসে এসে ঘুষ দিতে চায় ইমরান হোসেনকে। পরে ঘুষ দিতে চাওয়ার ভিডিওসহ প্রতিবেদনটি একাত্তর টিভিতে প্রচার হলে বিভিন্ন মহলে নিন্দার ঝড় ওঠে।এরপর এপ্রিল মাসের ৫ তারিখ বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন বাদল। বিষয়টি শুক্রবার (২২ জুলাই) রাতে জানাজানি হলে তীব্র নিন্দার ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। একইসঙ্গে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি জানানো হয়। এরপর বরগুনা ও পটুয়াখালীর বিভিন্ন উপজেলার সাংবাদিকরা ইমরান টিটুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে কর্মসূচির ডাক দেন। এরই অংশ হিসেবে বরগুনায় আজ পুলিশের বিভাগীয় উপ মহাপরিদর্শকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়ন আয়োজিত এই কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করে উপস্থিত ছিলেন বরগুনা রিপোটার্স ইউনিটি, বেতাগী প্রেসক্লাব, পাথরঘাটা উপজেলা প্রেসক্লাব, তালতলী প্রেসক্লাব, তালতলী সাংবাদিক ফোরাম, মির্জাগঞ্জ প্রেসক্লাব, পটুয়াখালী প্রেসক্লাবের সদস্যরা।পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সাদ্দাম বলেন, সাংবাদিক ইমরান হোসেন টিটুকে হয়রানি করতে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মামলা করা হয়েছে। এর আগেও এই সাংবাদিক বিভিন্ন দুর্নীতিবাজদের মুখোশ উন্মোচন করেছেন। মামলা করে কখনোই সাংবাদিকদের লেখা বন্ধ করা যায়নি, যাবে না। বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন ফসল বলেন, সাংবাদিকরা অনিয়ম, দুর্নীতি ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ভূমিকা রেখে যাবেন। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি জানাচ্ছি। সরকার শিগগিরই এ আইন বাতিল করবেন বলে আশা রাখছি। এ আইন বাতিল না হলে বাক্স বাদলের মত দূর্নীতিবাজরা দূর্নীতি করেও পার পেয়ে যাবে।বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তরের নিজস্ব প্রতিবেদক এম মুজিবুল হক কিসলু বলেন, সাংবাদিক টিটুর প্রতিবেদনটি কয়েকবার দেখেছি। প্রতিবেদনে দেখা যায় বাদল টিটুকে ঘুষ দিতে চাচ্ছে। ঘুষ দিতে চাওয়ার ভিডিওটি প্রতিবেদনে দেখানোর জন্য বাদল মিথ্যা অভিযোগ এনে টিটুর বিরুদ্ধে মামলা দেয়। তাই পুলিশের কাছে অনুরোধ করবো এঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করার।ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার শিকার সাংবাদিক ইমরান টিটু বলেন, এই বাদল আমাকে প্রতিবেদন বন্ধ করার জন্য ঘুষ দিতে চেয়েছে, আমি ঘুষ না নিয়ে ঘুষ দিতে চাওয়ার কথোপকথনের ভিডিও যুক্ত করে প্রতিবেদন প্রচার করি। এটা কি আমার অন্যায়? তিনি ঘুষ দিতে চেয়েছেন এটা অন্যায় নয়? আমি তদন্তকারী পুলিশ, প্রশাসন, আদালতের প্রতি শ্রদ্ধা রাখি। আমি আশা করি, পুলিশ সঠিক তদন্ত করে প্রতিবেদন দেবে এবং এই মামলা থেকে আমি মুক্তি পাব।জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার সভপতি ও মাইটিভির বরগুনা প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম স্বপনের সঞ্চালনায় এই কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য রাখেন- বরগুনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মাহবুবুল আলম মান্নু, বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম হায়দার স্বপন, বেতাগী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ইরান, পাথরঘাটা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সুমন মোল্লা, তালতলী সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি হাইরাজ মাঝিসহ অন্যান্য সাংবাদিকবৃন্দ। মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে বরগুনা পুলিশ সুপারের কাছে পুলিশের ডিআইজি বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়৷

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটেগরির আরও খবর

পাথরঘাটায় দেওয়ানি মামলা চলমান” জোরপূর্বক জমি দখলের পাঁয়তারা বরগুনা জেলা সংবাদদাতা: বরগুনার পাথরঘাটায় জোরপূর্বক জমি দখলের পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে এলাকার প্রভাবশালী ভুমি দস্যু শাহ আলম খান গংদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি পাথরঘাটা পৌর সভার ৯নং ওয়ার্ডে। এব্যাপারে ভুক্তভোগী মোঃ জব্বার হাওলাদার গংরা মোকাম বরগুনা ,পাথরঘাটা সহকারী জজ আদালতে (স্বত্ত্ব ঘোষণা সহ বন্টন) ৩৪৭ জনকে বিবাদী করে দেওয়ানি মোকদ্দমা নং ১৯৪/২০২১ ইং মামলা দায়ের করেছেন। উক্ত মোকদ্দমা টি চলমান রয়েছে। প্রতিপক্ষ শাহ আলম খান আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল না হয়ে জোর পূর্বক জব্বার হাওলাদার গংদের কবলা ও রেকর্ডিও মালিকানা প্রায় ২০০ বছরের ভোগদখলীয় জমি দখলের পাঁয়তারা করেন জানান ভুক্তভোগীরা। স্থানীয়রা বলেন , দীর্ঘদিন যাবত জব্বার গংরা জমি চাষাবাদ ও বসতবাড়ি নির্মাণ করে আসছে। কিন্তু শাহ আলম গংরা জমি পাবেনা বুঝতে পেরেই এক শ্রেণীর অসাধু কুচক্রী মহলের দ্বারপ্রান্ত হয়ে শাহ আলম খান গংদের পক্ষের মরিয়ম নামের একজন জমির মালিক সেজে কাগজপত্র বিহীন গত ০২ আগষ্ট ২০২২ ইং তরিকুল ইসলাম আসাদুজ্জামান নামের এক ব্যক্তিকে বায়না রেজিস্ট্রি করে দেন জব্বার হাওলাদার গংদের ভোগদখলীয় জমি । ক্ষমতাসীনরা ভুয়া বায়না কাগজপত্র পেয়ে ক্ষমতার প্রভাব দেখিয়ে দেওয়ানি বন্টন মামলা চলমান থাকার পরেও তারা জমি দখলের পাঁয়তারা চালায়। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মোঃ জব্বার হাওলাদার গংরা প্রশাসনের সহযোগিতা চান। তবে অভিযুক্ত শাহ আলম খান গংরা, উল্লেখিত দেওয়ানি মামলায় এপিয়ার হয়েছেন বলে জানান তারা। মুক্তির সংবাদ