1. admin@dailymuktirshongbadbd.com : Dailymuktirshongbadofficial :
  2. mridapress@gmail.com : mridapress@gmail.com :
শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
আপনার সংবাদ প্রচারে বিজ্ঞাপন দিন
শিরোনামঃ
যশোর বেনাপোলে ফেনসিডিল সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক/ মুক্তির সংবাদ বরগুনায় ইউপি নির্বাচনে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত/মুক্তির সংবাদ বঙ্গবন্ধু রাজনৈতিক নেতা থেকে ইতিহাসের মহানায়ক” ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু-এমপি /মুক্তির সংবাদ বেনাপোলে ১৫০ বোতল ফেনসিডিল মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ১ । মুক্তির সংবাদ হবিগঞ্জের কুখ্যাত ডাকাত হেলাল গ্রেফতার।আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরন। মুক্তির সংবাদ জমি বিরোধীদের জেরে মিথ্যা মামলা দিয়ে হারানের অভিযোগে মানববন্ধন মামলা প্রত্যাহার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান । মুক্তির সংবাদ বেতাগী উপজেলার কাজিরাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত। মুক্তির সংবাদ বেতাগী উপজেলার কাজিরাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত বরগুনার আমতলীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত //মুক্তির সংবাদ

সম্মানীয় ব্যক্তির সম্মান ক্ষুন্ন করছে এক কুচক্রি মহল

  • আপডেট সময় বুধবার, ২৯ জুন, ২০২২
  • ৫৬ এতক্ষন দেখবেন

স্টাফ রিপোর্টার ( নাটোর )
দিঘাপতিয়া মোহাব্বত কুরবান কলেজ নাটোর মোঃ নাসির উদ্দিন বাদশা প্রভাষক ,ইংলিশ, বলেন আমাকে ঘিরে কিছু লোক মিথ্যা অভিযোগ প্রচার করে আমার সম্মান ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করছেন ।
২২ /৫ /২০২২ তারিখে নুরুন্নাহার নামের এক শিক্ষার্থীর অভিযোগ করেন প্রভাষক ইংরেজি নাসির উদ্দিন বাদশার বিরুদ্ধে নুরুন্নাহার ২০২০ সালের উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এইচএসসি পাস করেন । পাস করে বের হয়ে যাওয়ার কিছুদিন পর নাসির উদ্দিন বাদশার মামাতো ভাই নুরুন্নাহার এর কাছে কিছু টাকা পায় । সেই টাকা চাইতে গেলে। নুরুন্নাহার তাদেরকে ভয় দেখিয়ে বলে ।আমার কাছে কোন টাকা পাবে না এবং আমি তোমাদেরকে এমন অবস্থা করব । যাতে কলেজ থেকে বের করে দেয় । নুরুন্নাহার এটি মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ করেন। প্রভাষক ইংরেজি নাসির উদ্দিন বাদশার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা তদন্ত করেন
মেম্বার ও চেয়ারম্যান এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় মিথ্যে অভিযোগ বলে প্রমাণিত হয় । পরবর্তীতে এই অভিযোগ তুলে নেন নুরুন্নাহার ।
এর কিছুদিন পর এম কে কলেজের কিছু শিক্ষক, একত্রিত হয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মিথ্যে বানোয়াট কিছু অভিযোগ তুলে ধরেন যার কোন প্রমান নেই। একপর্যায়ে নিলুফার নামক এক শিক্ষক পাঁচ বছর আগের মিথ্যে অভিযোগ তুলে ধরেন ।

আমি নাসির উদ্দিন বাদশা দীর্ঘদিন যাবত
এই কলেজের প্রভাষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করি । আমার পিছনে অথবা সামনে কোন অভিযোগ নাই। আমি কখনো কলেজের সম্মান নষ্ট হবে এমন কোন কাজে লিপ্ত হই নাই । নাসির উদ্দিন বাদশা আমাদেরকে মুঠোফোনের বিষয়গুলো জানান।
জেলা প্রতিনিধি জানান যে দাতা সদস্য আব্দুস সোবহান
শিক্ষকদের মিটিং এর ভেতর অযাচিত হস্তক্ষেপ করে।
কলেজে প্রাইমারী বা যে কোন নিয়োগ পরীক্ষা থাকলে সেই দিনগুলোতে কলেজে আসে।
পাবলিক পরীক্ষা বা বোর্ড পরীক্ষার দিনেও কলেজে আসে এবং পরীক্ষার রুমে রুমে যায়।
শিক্ষকদের ভেতর বিভেদ সৃষ্টি করে।
তার পরিবারের ৪ জন কে কলেজে চাকরির ব্যবস্থা করলেও অন্য ভাইদের পরিবারের চাকরির ব্যবস্থা করে নাই।
দীর্ঘ ৩২ বছর যাবত অন্য ভাইদের বঞ্চিত করে দাতা সদস্যের পদ দখল করে আছে।
তার লোহার দোকান থেকে কলেজের গ্রীল বানিয়ে দিয়ে আর্থিক ভাবে সুবিধা নিয়েছেন।
আর্থিক সুবিধার জন্য সারাদিন কলেজেই পরে থাকে।

প্রভাষক অরবিন্দু সাহা বিএনপির সময় তিন টার্ম শিক্ষক প্রতিনিধি ছিল আবার আওয়ামী লীগের সময় ৪ টার্ম শিক্ষক প্রতিনিধি হইছেন। তিনি সব সময় সরকারী দলে থাকেন।
শিক্ষক প্রতিনিধির ক্ষমতা খাটিয়ে জোর করে ৫/৭ টা আর্থিক কমিটিতে থাকেন।
২০০৬ সালে তার এক হিন্দু বন্ধু মারা গেলে তার বউ এর সাথে ধরা পরেন। পরে শ্রমিক দলের সেক্রেটারী কামাল হোসেন তাকে বাচিয়ে দেন। কারন সে সময় তিনি বিএনপি করতেন। বর্তমানে তিনি আওয়ামী লীগ করেন।
তিনি বিএনপির সময় জিয়া পরিষদের সদস্য ছিলেন। তিনি সব সময় সরকারী দলের সুবিধা নিয়ে চাকরি করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটেগরির আরও খবর