1. muktirshongbad@gmail.com : 20dailymuktirshongbadbd.com :
  2. miliakthar868@gmail.com : Editor :
  3. mdkaiumjsc01643@gmail.com : Kaium Hossain :
  4. ramjanbhuiyan84@gmail.com : ramjanbhuiyan :
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:১৬ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
বহুল জনপ্রিয় দৈনিক মুক্তির সংবাদ অনলাইন পত্রিকায় সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।  বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায়, উপজেলায়,দৈনিক মুক্তির সংবাদ পত্রিকা সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায়, উপজেলায়, জেলা ব্যুরো প্রধান ও বিভাগীয় ব্যুরো প্রধানে কাজ আগ্রহী প্রার্থীগণ সিভি পাঠাতে পারেন। ন্যূনতম যোগ্যতা এস এস সি পাশ।চূড়ান্ত নির্বাচন প্রক্রিয়া:রিক্রুটিং টিম কোন প্রকার একাডেমিক পরীক্ষার ফল বিবেচনা করবে না। কর্মঠ, সৎ ও কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুগত প্রার্থীদের বাছাই করা হবে।E-mail :  muktirshongbad@gmail.com যোগাযোগ নাম্বার:01752602939/01710006400 ।সম্পাদক ও প্রকাশক,মোঃ মাসুদ মৃধাঃ 01933609066

বরগুনায় ভারী বর্ষণ”জোয়ারের পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত// দৈনিক মুক্তির সংবাদ

  • খবর পাবলিসের সময় শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১
  • ৭০ বার পোস্টটি পড়া হয়েছে

 

সোহরাব নির্বাহী সম্পাদক :

বৃষ্টির পানি ও জোয়ারের পানিতে ডুবে আছে বরগুনার চাষিদের ধান, আমনের বীজতলা ও সবজির ক্ষেত। টানা চারদিনের বর্ষণে বরগুনার বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে লোকালয়ের পাশাপাশি নিমজ্জিত হয়েছে আমনের বীজতলা। ডুবে গেছে অসংখ্য মাছের ঘের, পানের বরজ,এছাড়া নদীর তীরবর্তী এলাকার ঘরবাড়িতে পানি প্রবেশ করায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সেখানকার বাসিন্দারা।

জানা গেছে, সপ্তাহ জুড়ে টানা ভারী বৃষ্টিতে বরগুনার নিম্নাঞ্চল ডুবে যায়। এতে জেলার ৫টি উপজেলার নিচু অঞ্চলের সব আমন বীজতলা ক্ষেত পানিতে তলিয়ে যায়।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, এবার জেলায় এক লাখ ২২ হাজার ৯৯৪ হেক্টর জমিতে আমন চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে। এসব জমিতে আমন আবাদের জন্য ১৫ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে বীজতলা করা হয়। কিন্তু প্রবল বর্ষণের কারণে অধিকাংশ এলাকার বীজতলা এখন ডুবে আছে। এতে বীজতলার চারাগুলোতে পচন ধরার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এছাড়া আমনের আবাদের মৌসুমে জমির চাষাবাদও বন্ধ হয়েছে।

জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি পরিমাপক রিডার মাহতাব হোসেন জানান, অতি বর্ষণে বরগুনার পায়রা, বিষখালী ও বলেশ্বর এই তিনটি নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে তিন ফুট উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিকে অতি বর্ষণের সঙ্গে ঝড়ো হাওয়ায় সৃষ্ট ঢেউয়ে জেলার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এতে উপকূলীয় নদী তীরবর্তী এলাকার লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। বরগুনার ছয় উপজেলা আমতলী, তালতলী, পাথরঘাটা, বেতাগী, বামনা ও বরগুনা সদরের বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল পানিতে তলিয়ে গেছে।

বরগুনার বাইনচটকি ফেরিঘাটের খেয়াচালক নাসির মিয়া বলেন, বিষখালী নদীর এই এলাকায় জোয়ারের পানি অনেক বাইড়া গ্যাছে। ফেরির গ্যাংওয়েসহ সংযোগ সড়ক তলাইয়া গ্যাছে। মোরা খেওয়া চালাইন্না বন্দ রাকছি।

বরগুনা সদর ইউনিয়নের মাছ চাষি সাকিব ফরাজি বলেন, আমার ঘেরের অনেক মাছ বেরিয়ে গেছে। কোনোমতে জাল দিয়ে আটকে রাখার চেষ্টা করছি। বৃষ্টি না কমলে মাছ রক্ষা করার কোনও উপায় নেই।

এ বিষয়ে বরগুনা পানি উন্নয়ন বোর্ডেও নির্বাহী প্রকৌশলী কায়সার আলম বলেন, আমাদের ২২টি পোল্ডারের ৮০০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের বেশকিছু এলাকায় ভাঙ্গন কবলিত হয়েছে। জরুরি ভিত্তিতে আমরা সেসব এলাকার বাঁধ রক্ষায় ব্যবস্থা নিচ্ছি।

পোস্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটেগরির আরও খবর