1. muktirshongbad@gmail.com : 20dailymuktirshongbadbd.com :
  2. mdkaiumjsc01643@gmail.com : Kaium Hossain :
  3. ramjanbhuiyan84@gmail.com : ramjanbhuiyan :
বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
বহুল জনপ্রিয় দৈনিক মুক্তির সংবাদ অনলাইন পত্রিকায় সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।  বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায়, উপজেলায়,দৈনিক মুক্তির সংবাদ পত্রিকা সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায়, উপজেলায়, জেলা ব্যুরো প্রধান ও বিভাগীয় ব্যুরো প্রধানে কাজ আগ্রহী প্রার্থীগণ সিভি পাঠাতে পারেন। ন্যূনতম যোগ্যতা এস এস সি পাশ।চূড়ান্ত নির্বাচন প্রক্রিয়া:রিক্রুটিং টিম কোন প্রকার একাডেমিক পরীক্ষার ফল বিবেচনা করবে না। কর্মঠ, সৎ ও কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুগত প্রার্থীদের বাছাই করা হবে।E-mail :  muktirshongbad@gmail.com যোগাযোগ নাম্বার:01752602939/01710006400 ।সম্পাদক ও প্রকাশক,মোঃ মাসুদ মৃধাঃ 01933609066

পথের ইশকুল ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২১ //দৈনিক মুক্তির সংবাদ

  • খবর পাবলিসের সময় শনিবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১১৬ বার পোস্টটি পড়া হয়েছে

রাজমিন আক্তার  আক্তার স্কাউট প্রতিনিধি

বিশেষ কিছু ক্ষুদে চ্যাম্পিয়ানদের দেখা মিলেছিল শেখ রাসেল আউটার মাঠে।শুক্রবার বেলা দুপুর ২ঃ০০ হতে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত পথের ইশকুলের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছিল “পথের ইশকুল ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২১” এ আমাদের বিদ্যানিকেতনকে ৩/০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে পথের ইশকুল। পথের ইশকুল এর পক্ষে গোল করেছে রনি, রমজান ও বাবু।

 

তবে যথেষ্ট ভালো খেলে চ্যাম্পিয়ন দলের বাচ্চাদের পাশাপাশি রানার্স আপের বাচ্চারাও মাঠ মাতিয়ে রেখেছে পুরোটা সময় ধরে।

 

পথের ইশকুলের সেচ্ছাসেবীরা জানায় হারজিতের এই অংক কষার চেয়ে তাদের কাছে সবচেয়ে বড় বিষয় হলো সুবিধাবঞ্চিত এই শিশুগুলোর জন্য নতুন বছরে নতুন কিছুর আয়োজন করার মাধ্যমে , তাদের মনের আশা পূরণ করতে পারাটা।

পাশাপাশি পথের ইশকুল এ কাজ করতে গিয়ে তাদের সব সময় একটা কথা শুনতে হয় যে, এই বাচ্চা গুলোকে দিয়ে কিছুই হবে না। এরা সমাজের নোংরা কীট। সারাদিন ড্যান্ডির নেশায় বুদ হয়ে থাকা এই শিশু গুলোকে সবাই ঘৃণার চোখে দেখেন সাধারণ মানুষ।

রাষ্ট্র থেকে শুরু করে প্রশাসন, সাধারণ মানুষ সবাই এই বাচ্চাগুলোর প্রতি দায় এড়িয়ে যায়। বরং তারা যখন প্রশ্ন করেন, এই শিশু গুলোর কাছে দোকানদারেরা বা ব্যবসায়ীরা কেনো ড্যান্ডি বিক্রি করে, তখন আইন প্রয়োগকারী সংস্থা থেকে বলা হয়, বিক্রেতা কার কাছে কি বিক্রি করছে এটা দেখা তাদের দায়িত্ব নয়।

তারা তাদের অবস্থান থেকে প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছেন, এই বাচ্চা গুলোকে ড্যান্ডি সহ সব ধরনের মাদকের আসক্তি থেকে বের করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন। একটু নার্চার, ভালোবাসা এবং সহায়তা পেলে এই ড্যান্ডি খোর বাচ্চা গুলোকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা সম্ভব। আজকে তারা প্রমান করেছেন এবং দেখিয়ে দিয়েছেন, এটা আসলেই সম্ভব।

এই অসম্ভবকে সম্ভব করার লক্ষ্যেই আয়োজন করেছিলেন একটি প্রীতি ফুটবল ম্যাচের।

আজকের ম্যাচের সবচেয়ে বড় দিক হচ্ছে, আজকে এই বাচ্চারা ড্যান্ডি খায়নি। এই স্প্রিরিট টা এসেছে ওদের নিজেদের মধ্যে থেকেই।

পুরো ম্যাচ চলাকালে বাচ্চারা কোনো রকম গালাগালি বা মারামারি করেনি। একদম প্রফেশনাল খেলোয়াড়দের মতো আচরণ করেছে তারা।

এখানেই তাদের স্বার্থকতা এবং সফলতা।

টুর্নামেন্টেটি সরাসরি দেখতে এবং বাচ্চাদের মাঠ থেকে উৎসাহ দিতে হাজির হয়েছিল তাদের শুভাকাঙ্ক্ষীরা আর সাথেই ছিলেন পুরোটা সময় ধরে।

 

আমরাও অনেক শুভকামনা জানাই রানার্সআপ টিম ও চ্যাম্পিয়ান টিমের জন্য এবং পথের ইশকুলের ভলেন্টিয়ার টিম ও সংশ্লিষ্ট সকালে জন্য এভাবেই তারা চ্যাম্পিয়ানের মতো পৌঁছে যাক তাদের লক্ষে তাদের ক্ষুদে চ্যাম্পিয়ানদের নিয়ে।

পোস্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটেগরির আরও খবর