1. muktirshongbad@gmail.com : 20dailymuktirshongbadbd.com :
  2. mdkaiumjsc01643@gmail.com : Kaium Hossain :
  3. ramjanbhuiyan84@gmail.com : ramjanbhuiyan :
সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৮:৫৬ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
বহুল জনপ্রিয় দৈনিক মুক্তির সংবাদ অনলাইন পত্রিকায় সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।  বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায়, উপজেলায়,দৈনিক মুক্তির সংবাদ পত্রিকা সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায়, উপজেলায়, জেলা ব্যুরো প্রধান ও বিভাগীয় ব্যুরো প্রধানে কাজ আগ্রহী প্রার্থীগণ সিভি পাঠাতে পারেন। ন্যূনতম যোগ্যতা এস এস সি পাশ।চূড়ান্ত নির্বাচন প্রক্রিয়া:রিক্রুটিং টিম কোন প্রকার একাডেমিক পরীক্ষার ফল বিবেচনা করবে না। কর্মঠ, সৎ ও কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুগত প্রার্থীদের বাছাই করা হবে।E-mail :  muktirshongbad@gmail.com যোগাযোগ নাম্বার:01752602939/01710006400 ।সম্পাদক ও প্রকাশক,মোঃ মাসুদ মৃধাঃ 01933609066

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, গ্রেফতার শাশুড়ি নুরুন নাহার

  • খবর পাবলিসের সময় শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৩৪ বার পোস্টটি পড়া হয়েছে


ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি (ময়মনসিংহ)

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে তাছলিমা (২৮) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ঈশ্বরগঞ্জ ইউনিয়নের চরপূবাইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহতের শ্বাশুড়ি নুরুন নাহারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
নিহত তাছলিমা উপজেলার মগটুলা ইউপির নারায়ণপুর গ্রামের আব্দুছ ছালামের মেয়ে এবং ঈশ্বরগঞ্জ ইউনিয়নের চরপূবাইল গ্রামের কলিমদ্দিনের ছেলে সোহেল রানার স্ত্রী।

শুক্রবার সকাল ১১টায় জানাজার সময় নির্ধারণ করে সকল প্রস্তুতি শুরু করা হয়। কবর খুঁড়ে, বাঁশ কেটে সব সম্পন্ন করা হয়। কিন্তু ১০টার দিকে তাসলিমার মরদেহ গোসল করানোর সময় চাচী বেদেনা খাতুন দেখতে পান তাসলিমার গলায় দাগের চিহ্ন। ওই সময় তাসলিমার বাবার বাড়ির লোকেরা দাগ দেখে ফেলায় লাশ রেখে সরে পরেন শ্বাশুড়ি ও পরিবারের অন্য সদস্যরা। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ যায় ঘটনাস্থলে।

তাসলিমা আক্তার ( গৃহবধূর) মৃত্যু নিয়ে রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। তার শ্বশুরবাড়ির পরিবার দাবি করে- বৃহস্পতিবার রাতে তাসলিমা স্ট্রোক করে মারা গেছেন। তবে জানাজার কিছু সময় পূর্বে তাসলিমার গলায় দাগ দেখতে পায় তার বাবার বাড়ির লোকেরা। এ অবস্থায় শুক্রবার স্বামীর বাড়ির লোকজন পালিয়ে গেলে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ৬ বছর আগে পোশাক কারখানায় কাজ করার সময় প্রেমের সম্পর্কে তাছলিমার সঙ্গে সোহেল রানার বিয়ে হয়। ইতোমধ্যে তাদের ৪ বছর বয়সী এক পুত্র, দেড় বছরের এক কন্যাসন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে বিবাদ চলে আসছিল।

তাছলিমার পরিবারের দাবি, ৪ দিন আগে তাছলিমার স্বামী তাকে বাবার বাড়ি থেকে দুই লাখ টাকা এনে দেয়ার জন্য চাপ দেয়। বাবার বাড়ির লোকজন টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। পরে এ নিয়ে স্বামী ও তার পারিবারের লোকজন তাছলিমার ওপর নির্যাতন চালায়।

গত বৃহস্পতিবার রাতে মোবাইল ফোনে তাছলিমা গুরুতর অসুস্থ বলে তার বাবার বাড়িতে খবর দেয় স্বামী সোহেল রানা। খবর পেয়ে বাবার বাড়ি থেকে লোকজন এসে তাছলিমাকে মৃত দেখে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পেয়ে তাদের সন্দেহ হয়।

পরে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করে। শুক্রবার দুপুরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

পোস্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটেগরির আরও খবর